আসছে পাটের “পলিব্যাগ”

পাট দিয়ে তৈরি হয়েছে পলিথিন ব্যাগ। এটি বাজারে ব্যবহৃত প্রচলিত পলি ব্যাগের মতোই, তবে পচনশীল।

পাট ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম আগামী ৬ মাসের মধ্যে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে পাটের পলিথিন উত্পাদন শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন।

দেশের চাহিদা পূরণ করে বিদেশেও রফতানি হবে এই ব্যাগ। বাজারে যে পলিথিন ব্যাগ আছে তার চেয়ে দেড়গুণ বেশি টেকসই এবং ব্যবহার স্বাচ্ছন্দ্য পাওয়া যাবে এই পাটের পলিথিনে।

আণবিক শক্তি কমিশনের সাবেক ডিজি ড. মোবারক হোসেনের নেতৃত্বে বিজ্ঞানীরা পাট পলিমার তৈরি করছেন। এটি পলিথিনের বিকল্প হিসেবে বিভিন্ন মোড়কজাতীয় পণ্য তৈরিতে ব্যবহূত হবে। তারা বর্তমানে এই ব্যাগ ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে তৈরি করেছেন। বিদেশ থেকে যন্ত্র আসার পর বাণিজ্যিকভাবে তৈরি করা হবে।

 

পাটের তৈরি পরিবেশবান্ধব পলিথিন বাজারে এলে ক্ষতিকর প্রচলিত পলিথিনের বিদায় ঘটবে বলে আশা করছে পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়।

সংশ্লিষ্টরা জানান, পাটের তৈরি পলিথিন মাটিতে ফেললে তা মাটির সঙ্গে মিশে যাবে। ফলে পরিবেশ দূষিত হবে না। এই ব্যাগ দামে সাশ্রয়ী হবে। এভাবে পাটের ব্যবহার বাড়লে ন্যায্য দাম পাবেন কৃষক। অতীতের মতোই পাট দিয়েই বিশ্বে সুপরিচিত হবে বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *