পকেটমার নায়িকাকে নিয়ে যা বললেন অঙ্কুশ

কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রূপা দত্ত। অভিনয় করছেন নিয়মিত। তার তারকাখ্যাতির জন্য হয়েছেন বহুবার খবরের শিরোনাম। তবে এবার এক ঘটনা ঘটালেন তিনি। তা নিয়ে চলছে হইচই।

গত শনিবার (১২ মার্চ) কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা থেকে পকেটমারের অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অন্যান্য দিনের মতো ওইদিন সন্ধ্যায় আন্তর্জাতিক বই মেলায় টহল দিচ্ছিল কলকাতা পুলিশ। ঠিক সে সময়ই পুলিশের এক সদস্যের নজরে আসে ডাস্টবিনে একটি ব্যাগ ফেলে চলে যাচ্ছেন রূপা। এতে পুলিশের সন্দেহ হয়। এরপর অভিনেত্রী রূপাকে নানা প্রশ্ন করার পর তার কোনো উত্তরই দিতে পারেননি রূপা। পরবর্তীতে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

পকেটমার এই অভিনেত্রীকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করলেন কলকাতার জনপ্রিয় চিত্রনায়ক অঙ্কুশ।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে অঙ্কুশ তার প্রথম সিনেমা ‘কেল্লাফতে’-এর একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে, সমুদ্রের জলে নাচছেন অঙ্কুশ ও রূপা। ক্যাপশনে অঙ্কুশ লিখেছেন, ‘মনে পড়ছে প্রথম ছবির কথা। তখন আমার টাকাও ছিল না, তাই মানিব্যাগও ছিল না।’ পাশে হ্যাশট্যাগে ‘থ্যাঙ্ক গড’ (ভাগ্যিস) লেখা। মূলত এই লেখা দিয়ে রূপা দত্তকে ট্রল করেছেন তিনি।

ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে ২০০৯ সালে ‘কেল্লাফতে’ ছবির শুটিং শুরু হয়েছিল। টানা এক বছর ধরে সেই ছবির কাজ চলে। ২০১০ সালে ছবিটি মুক্তি পায়। বাংলা ইন্ডাস্ট্রি এক ‘হিরো’ পায়। তার নাম অঙ্কুশ হাজরা। আর ‘হিরোইন’? রূপা দত্ত।

এ প্রসঙ্গে অঙ্কুশ বলেন, ‘রূপার চালচলনে আভিজাত্য ছিল। সম্ভবত তিনি ‘কেল্লাফতে’ ছবির একজন প্রযোজকও ছিলেন। অর্থলগ্নি করেন ছবিতে। যা জানতাম, স্বচ্ছল পরিবার থেকে এসেছিলেন তিনি। পরে বইমেলায় পকেটমারের ঘটনা শুনে চমকে উঠেছি।’

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৪ মার্চ) এই অভিনেত্রীকে ১৭ মার্চ পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে বিধাননগর মহকুমা আদালত। এর আগে রূপার আইনজীবী জামিন চাইলে তা নাকচ করা হয়।

সূত্র : আজটক বাংলা

Leave a Reply

Your email address will not be published.