ভারতের গুজরাটে টেক্সটাইল পার্ক স্থাপন করছে বাংলাদেশ

ভারতের গুজরাটে টেক্সটাইল পার্ক স্থাপন করবে বাংলাদেশ। প্রথমে সুতা উৎপাদনে বিনিয়োগ করা হবে। পরে পোশাকশিল্প খাতে।
গুজরাটের আহমেদাবাদের কাদি এলাকায় এই টেক্সটাইল পার্ক করতে প্রাথমিকভাবে বিনিয়োগ করা হবে ২৪০ থেকে ৩০০ কোটি রুপি। প্রথমদিকে সুতা উৎপাদনে ইউনিট স্থাপন করা হবে। টেক্সটাইল পার্ক গড়ে তোলার জন্য গুরাট রাজ্য সরকারের কাছে ১০০ এক জমি চেয়েছে।
টেকাসটাইল পার্ক স্থাপনের উদ্দেশে গত মাসে গুজরাট পরিদর্শন করেছেন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই), বাংলাদেশ তুলা অ্যাসোসিয়েশন এবং বাংলাদেশ পোশাক প্রেস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) নেতারা।  টেক্সটাইল পার্ক স্থাপনে রাজ্য সরকারের কাছে একটি প্রস্তাব করেছে বাংলাদেশের শীর্ষ ব্যবসায়ী সংগঠনগুলোর নেতারা।
বাংলাদেশের টেক্সটাইল পার্ক স্থাপন প্রসঙ্গে টাইমস অব ইন্ডিয়াকে গুজরাটের শিল্প কমিশনার মমতা ভর্মা বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে বাংলাদেশ সুতা উৎপাদন করতে বিনিয়োগ করবে। পরে পোশাক প্রস্তুতের কার্যক্রম শুরু করবে। গুজরাট থেকে বাংলাদেশ সুতা আমদানি করে থাকে। ফলে এই পার্ক হলে সুতার উৎপাদন খরচ কমাতে পারবে তারা। আর ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্যের উন্নতির জন্য এই প্রকল্প খুবই গুরুত্ব বহন করবে।’
বিশ্বের বৃহত্তম তৈরি পোশাক রপ্তাকারক দেশ হিসেবে বাংলাদেশের জন্য গুজরাটের প্রকল্প অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। তবে বাংলদেশের টেক্সটাইল পার্কের সুতা উৎপাদন প্রকল্প ভারতের জন্য সুতার ব্যাংক হিসেবে কাজ করবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।
ডায়াগোনাল কনসাল্টিং ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান ড. পিআর রায় বলেন, সুতা উৎপাদন খাতের উন্নয়নের জন্য গুজরাট সরকার সম্মুখবর্তী নীতি গ্রহণ করেছে। এই রাজ্যে বিদ্যুৎ ও তুলা পর্যাপ্ততা থাকায় বিভিন্ন কোম্পানি এখানে কার্যক্রম চালাতে আগ্রহী হয়ে উঠছে।
বাংলাদেশ বার্ষিক ৫৫ লাখ বেইল তুলা আমদানি করে। এর মধ্যে ৭০ ভাগ ভারত থেকে করা হয়। গুজরাট থেকে বেশি পরিমাণ তুলা আমদানি করে বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *